শুক্রবার ২৩ এপ্রিল, ২০২১

আইভীর বিরুদ্ধে রাইফেলস্ ক্লাবে সংবাদ সম্মেলন

শনিবার, ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ২২:২৯

প্রেস নারায়ণগঞ্জ.কম

প্রেস নারায়ণগঞ্জ: শহরের মন্ডলপাড়া এলাকায় মীর শরীয়ত উল্লাহ (মন্ডলপাড়া জামে মসজিদ) ওয়াক্ফ সম্পত্তির জমিতে অবৈধ অনুঃপ্রবেশ ও দখলের মাধ্যমে বাণিজ্যিকরণের অভিযোগে নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের মেয়র ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভীর বিরুদ্ধে সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে। শনিবার (২৭ ফেব্রুয়ারি) দুপুর তিনটায় চাষাঢ়ায় অবস্থিত রাইফেলস্ ক্লাবে এ সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করে মন্ডলপাড়া জামে মসজিদ কমিটি।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন মসজিদের মোতাওয়াল্লি সাখাওয়াত উদ্দিন, সভাপতি আব্দুর রহমান, সাধারণ সম্পাদক রিয়াজ উদ্দিন আহমেদ, কোষাধ্যক্ষ শহীদ হোসেন খন্দকার, সদস্য রফিকউদ্দিন আহমেদ প্রমুখ। মসজিদ কমিটির পক্ষে জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি মোহসীন মিয়া ও সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুর রহমানও উপস্থিত ছিলেন সংবাদ সম্মেলনে।

নারায়ণগঞ্জ প্রেস ক্লাবে না করে রাইফেলস্ ক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করার কারণ জানতে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে আয়োজকরা জানান, সহজলভ্য এবং খরচ কম হওয়াতে এই স্থান নির্বাচন করেছেন তারা। সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন রিয়াজ উদ্দিন আহমেদ। তিনি অভিযোগ তুলে বলেন, মন্ডলপাড়া মসজিদ ও মসজিদ সংলগ্ন বিভিন্ন দাগে ৮২ দশমিক ৯০ শতাংশ মীর শরিয়ত উল্লাহ (মন্ডলপাড়া জামে মসজিদ) ওয়াক্ফ এস্টেট রয়েছে। এই এস্টেট থেকে ৪৩ শতাংশ জমি নারায়ণগঞ্জ জেলা মডেল মসজিদ ও ইসলামিক সাংস্কৃতিক কেন্দ্র নির্মাণের জন্য দেওয়া হয়েছে। বাকি ৪০ শতাংশের মতো জমি দখলের অপচেষ্টা চালাচ্ছেন বলে সিটি মেয়রের বিরুদ্ধে অভিযোগ তোলা হয়।

রিয়াজ উদ্দিন বলেন, নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের মেয়র ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী মসজিদ ও মসজিদের আশেপাশের জমি দখলের চেষ্টা করছেন। মেয়র এই জমিতে বাণিজ্যিক ভবন ও তার পিতার নামে স্থাপনা নির্মাণ করবেন। এ বিষয়ে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘এই বিষয়ে মেয়র বা সিটি কর্পোরেশন তাদের কিছু বলেনি। তারা লোকমুখে শুনেছেন এবং স্থানীয় পত্রিকার মাধ্যমে জেনেছেন যে, সেখানে বাণিজ্যিক ভবন করতে চান মেয়র।’ যদিও সিটি কর্পোরেশনের দাবি, এমন কোনো পরিকল্পনা তাদের নেই।

এদিকে জমি দখলের অপচেষ্টার অভিযোগ তুলে গত ২৪ ফেব্রুয়ারি জেলা সহকারী জজ চতুর্থ আদালতে একটি মামলা করেন মসজিদের মোতাওয়াল্লি মো. সাখাওয়াত উদ্দিন। তিনি মামলায় বিবাদী করেছেন ঠিকাদার জাকির হোসেন, মো. ইকবাল ও মো. এহসানকে। চতুর্থ বিবাদী করা হয়েছে নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের মেয়র ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভীকে।

সংবাদ সম্মেলনে মসজিদ কমিটির সাধারণ সম্পাদক রিয়াজ উদ্দিন আহমেদ লিখিত বক্তব্যে বলেন, ২০১৯ সালের ২১ মার্চ ধর্ম মন্ত্রণালয়ের অধীন জেলা মডেল মসজিদ নির্মাণের প্রস্তাবের বিষয়ে মতবিনিময়ের জন্য একটি পত্র দেয়া হয়। ওই প্রস্তাবে ইসলামিক ফাউন্ডেশন এস্টেটের ৪৩ শতাংশ জমির চাহিদা দেওয়া হয়। এই প্রস্তাবে মসজিদ কমিটি অনাপত্তি প্রদান করে। তবে সিটি মেয়র আইভী এই ৪৩ শতাংশের বাইরে ৪০ শতাংম জমি দখল করতে চাইছেন বলে অভিযোগ তোলেন মসজিদ কমিটির সাধারণ সম্পাদক।

এ বিষয়ে জানতে নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের মেয়র ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী বলেন, ‘মুজিববর্ষে সরকারের প্রকল্পের আওতায় মন্ডলপাড়ার ওয়াক্ফ করা জায়গায় সিটি কর্পোরেশনের সহায়তা নিয়েই মডেল মসজিদ নির্মাণের কাজটি হচ্ছে। আমিই এটির ভিত্তিপ্রস্তর করেছি। আমি এটি কেন উদ্বোধন করলাম এটিই হলো আমার চরম অপরাধ। ওয়াক্ফ জায়গায় আমি ইসলামিক ফাউন্ডেশনকে কেন বললাম এখানে মসজিদটি করেন সেটিই হয়ে গেছে আমার অপরাধ। প্রধানমন্ত্রী এত সুন্দর মসজিদ উপহার দিচ্ছেন তা আমরা দেখছি না। শত্রুতার কারণে মেয়র আইভীকে ভূমিদস্যু বানাতেই হবে এজন্য কত ধরনের চক্রান্ত।’

পাল্টা প্রশ্ন তুলে মেয়র আরও বলেন, ‘যিনি এখন মসজিদের মোতাওয়াল্লি তারা তো এই জমি দান করেন নাই। এমনকি তাদের পিতা বা দাদাও এই জমি দান করেনি। জমিটি দান করেছে বিশু বেপারী। যার সাথে বতর্মানের কোনো সম্পর্ক নাই। তাহলে সে কীভাবে মোতাওয়াল্লি হয়ে আছে?’

সব খবর
রাজনীতি বিভাগের সর্বশেষ