শনিবার ২৮ নভেম্বর, ২০২০

আনোয়ার ভাই আমাদের নেতা: খোকন সাহা

শনিবার, ২১ নভেম্বর ২০২০, ২১:০৭

প্রেস নারায়ণগঞ্জ.কম

প্রেস নারায়ণগঞ্জ: নারায়ণগঞ্জ মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অ্যাড. খোকন সাহা বলেছেন, ‘আমি আপনাদের মত দুঃখিত ও ব্যাথিত। আমি প্রতিবাদের ভাষা হারিয়ে ফেলেছি। আমরা যখন একসাথে ছাত্রলীগ করতাম তখন আনোয়ার ভাই আমাদের নেতা ছিল। আনোয়ার ভাইকে সান্তনা দেওয়ার ভাষা আমাদের নেই। আনোয়ার ভাই আমাদের গুরু, অভিভাবক। তিনি ব্যথিত হয়েছেন।’

শনিবার (২১ নভেম্বর) বিকেলে নারায়ণগঞ্জ প্রেস ক্লাবের সামনে জাতীয় পার্টির সাংসদ লিয়াকত হোসেন খোকার বিরুদ্ধে মহানগর আওয়ামী লীগের মানববন্ধনে এসব কথা বলেন তিনি। সোনারগাঁয়ে জিআর ইনস্টিটিউশনে জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি আনোয়ার হোসেনের নামফলক ভেঙে ফেলার প্রতিবাদে এ কর্মসূচি পালিত হয়।

এ সময় খোকন সাহা আরও বলেন, ‘এই ঘটনা নারায়ণগঞ্জের অন্য এলাকায় হলে সে এলাকার সংসদ সদস্য দুঃখ প্রকাশ করতো। আমি মনের করি আমাদের সকলের এ বিষয়ে দুঃখ প্রকাশ করা উচিত। এই দুঃখ প্রকাশের মধ্য দিয়ে রাজনীতির শিষ্টাচার প্রমাণ পায়।’

তিনি বলেন, ‘আনোয়ার ভাই এ বিষয়ে উত্তেজিত হলে আমি তাকে আশ্বস্ত করে বলেছি, আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা আজীবন আপনার সাথে থাকবে। কারণ আপনি দলের ত্যাগী নেতা। তবে জেলা পরিষদের পক্ষ থেকে একটা ব্যবস্থা নেওয়া উচিত ছিল। সেদিক থেকে জেলা পরিষদ ব্যর্থ হয়েছে। আমি জেলা পরিষদের এই ব্যর্থতার জন্য নিন্দা জ্ঞাপন করছি। জেলা পরিষদের পক্ষ থেকে কোন প্রকার পদক্ষেপ নেওয়া হলো না।’

মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘পত্রিকায় লেখা হচ্ছিলো, মহানগর আওয়ামী লীগ দ্বিধাবিভক্ত। বলেছে, আনোয়ার সাহেব একদিকে খোকন সাহেব অন্যদিকে। আমি পরিষ্কারভাবে বলতে চাই, আপনারা এখানে বিভক্ত আনার চেষ্টা করবেন না। এই শহরে ২৫ বছর ধরে আমি রাজনীতি করছি আনোয়ার ভাইয়ের সাথে মতবিনিময় হয় কিন্তু মতপার্থক্য হয় না। আমরা দলের প্রশ্নে, নেত্রীর প্রশ্নে, নৌকার প্রশ্নে সবাই এক। ঘোলা পানিতে মাছ শিকার করা চলবে না। আনোয়ার ভাই এবং আমরা এই সুযোগ সন্ধানীদের মাছ শিকার করতে দেবো না।’

এমপি খোকাকে ক্ষমা প্রার্থনার পরামর্শ দিয়ে খোকন সাহা বলেন, ‘২০১৪ সালে সোনারগাঁয়ের আওয়ামী লীগেরা খোকা সাহেবের পক্ষ অবলম্বন করেছে। ২০১৮ সালেও আপনাকে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা সমর্থন করেছে। এই নেতাকর্মীরা ব্যথিত এবং দুঃখিত হয়েছে।’

এই মানববন্ধনে আরও বক্তব্য রাখেন আওয়ামী লীগের জাতীয় পরিষদের সদস্য অ্যাড. আনিসুর রহমান দিপু, জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি আরজু রহমান ভূইয়া, যুগ্ম সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম, মহানগর আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক জিএম আরমান, আহসান হাবীব, সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাড. মাহমুদা মালা, জিএম আরাফাত, স্বাস্থ্য বিষয়ক সম্পাদক ডা. আতিকুজ্জামান সোহেল, নাসিকের ১৮ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর কবির হোসাইন, সাবেক কাউন্সিলর মো. মনিরুজ্জামান প্রমুখ। মানববন্ধনে মহানগর আওয়ামী লীগের বিভিন্ন ইউনিটের কয়েকশ’ নেতাকর্মী উপস্থিত ছিলেন। এ সময় লিয়াকত হোসেন খোকার কুশপুত্তলিকাও দাহ করা হয়।

সব খবর
রাজনীতি বিভাগের সর্বশেষ