শুক্রবার ২৩ এপ্রিল, ২০২১

প্রতিদিন মৃত্যুর জন্য প্রস্তুত থাকি: শামীম ওসমান

সোমবার, ১ মার্চ ২০২১, ২০:৪৩

প্রেস নারায়ণগঞ্জ.কম

প্রেস নারায়ণগঞ্জ: নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সাংসদ সদস্য একেএম শামীম ওসমান বলেছেন, ‘আমাদেরকে সতর্ক থাকতে হবে ভবিষ্যৎ প্রজন্মের জন্য। আমাদের চাওয়ার পাওয়ার কিছু নাই পুলিশ ভাইয়েরা। আমরা এলাকার সংসদ সদস্য। মানুষ শান্তি চায়। আমি আপনাদের কাছে অনুরোধ করবো মানুষের শান্তির জন্য আপনারা কাজ করেন। আপনারা ভালো কাজ করলে হাত তুলে দোয়া করবো, খারাপ কাজ করবেন বিপক্ষে কথা বলে দিবো। কারণ আমার কাজই এটা। এখানে কোনো ছাড় হবে না। কারণ আল্লাহর কাছে জবাবদিহিতা করতে হবে। কিছু পাওয়ার জন্য রাজনীতি করি না।’

সোমবার (১ মার্চ) দুপুরে পুলিশ লাইনসে ‘পুলিশ মেমোরিয়াল ডে’ অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি আরও বলেন, ‘বাংলাদেশে মন্ত্রী, এমপি, বড় বড় নেতা আসে যা। কিন্তু মুক্তিযোদ্ধা এবং বীর প্রতীক এটা যারা পায়, এর চাইতে বড় পাওয়া কারও আছে বলে আমার মনে হয় না। তারা যুদ্ধ করেছেন বলে আজকে আমরা স্বাধীন দেশের সংসদ সদস্য, স্বাধীন পুলিশ। তা না হলে পুলিশের চাকরি তো দূরের কথা ঝাড়ুদারের চাকরি পাইতেন কিনা, আপানারা আর আমরা কী থাকতাম এটা নিয়েও সন্দেহ আছে।’

শামীম ওসমান বলেন, ‘ক্ষমতায় থাকলে অনেক কিছু কিন্তু ক্ষমতা বা চেয়ার না থাকলে কেউ চিনেও না। ফোন করলে বিরক্ত বোধ করে। আমার জীবনে সবচেয়ে বড় পাওয়া যে, জাতির জনকের কন্যা শেখ হাসিনা জাতীয় সংসদে দাড়িয়ে নিজের চোখের পানি দিয়ে আমার বাবা, মা এবং বড় ভাইকে স্মরণ করেছিলেন। বাংলাদেশের ইতিহাসে পার্লামেন্টে কেউ এটা করে নাই।’

তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশের পলিটিশিয়ানদের মধ্যে দুইটা ক্যাটাগরি আছে। যারা আবেগ দিয়ে পলিটিক্স করে তাদের জন্য খুব সমস্যা হয়ে গেছে। এখন গাছের পাতায় পাতায় আওয়ামী লীগ। চলে যাওয়ার সময় হয়েছে। আমি প্রতিদিন মৃত্যুর জন্য প্রস্তুত থাকি। ২০০১ এর ১৬ জুন আমার ডানে বামে সবাই মারা গেছে। আমি নিজেও আহত হয়েছি। আবার আমার সাক্ষ্য বদলে দেওয়া হয়েছে। আমি সেটা না মেনে আদালতে প্রত্যাখ্যান করেছি।’

পুলিশদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, ‘মানুষ কিন্তু আপনাদের কাছে অনেক কিছু আশা করে। করবেন কী করবেন না এটা আপনার ইচ্ছা। যদি আমি অবৈধ কাজ করি তাহলে হাশরের ময়দানে তার বিচার হবে। কোনো ধর্ম খারাপ কথা বলে না।’

সাংসদ বলেন, ‘দেশে ষড়যন্ত্র হচ্ছে। এটা আমার চাইতে আপনারা কোন অংশে কম জানেন না। ষড়যন্ত্র শেখ হাসিনা সরকারকে ফেলে দেয়ার জন্য না। এটা হচ্ছে রাষ্ট্রকে ধ্বংস করে দেয়ার জন্য। রাষ্ট্রের মূল কাঠামো সেনাবাহিনী, পুলিশ, বিচার বিভাগ, আইন বিভাগ এবং আমলাতন্ত্রকে বাইরে থেকে আঘাত করা হচ্ছে। তালেবানি রাষ্ট্রে পরিণত করতে চাচ্ছে তারা।’

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন বস্ত্র ও পাটমন্ত্রী গোলাম দস্তগীর গাজী (বীর প্রতীক)। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন নারায়ণগঞ্জ-২ আসনের সাংসদ নজরুল ইসলাম বাবু, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আনোয়ার হোসেন, জেলা প্রশাসক মোস্তাইন বিল্লাহ, জেলা সিভিল সার্জন ডা. মোহাম্মদ ইমতিয়াজ।

আরও উপস্থিত ছিলেন নারায়ণগঞ্জ পিবিআই’র পুলিশ সুপার মনিরুল ইসলাম, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন) মোস্তাফিজুর রহমান, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ডিএসবি) শফিউল ইসলাম, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (‘ক’ সার্কেল) মেহেদী ইমরান সিদ্দিকী, নারায়ণগঞ্জ প্রেস ক্লাবের সভাপতি খন্দকার শাহ আলম, সাধারণ সম্পাদক শরীফুদ্দিন সবুজ, নারায়ণগঞ্জ সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি আব্দুস সালাম, সাধারণ সম্পাদক আমির হোসেন স্মিথ প্রমুখ।

সব খবর
রাজনীতি বিভাগের সর্বশেষ