মঙ্গলবার ২৬ জানুয়ারি, ২০২১

সেই নামফলক পুনঃস্থাপন, জানে না কেউ

সোমবার, ২৩ নভেম্বর ২০২০, ১৬:৫৮

প্রেস নারায়ণগঞ্জ.কম

প্রেস নারায়ণগঞ্জ: অবশেষে সোনারগাঁ জিআর ইনস্টিটিউশনে পুনরায় স্থাপন করা হলো জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আনোয়ার হোসেনের নাম সম্বলিত ফলক। গত ২২ নভেম্বর সন্ধ্যায় নামফলকটি পুনরায় স্থাপন করা হয়। তবে নতুন করে কারা নামফলকটি সাঁটিয়েছেন তা জানা যায়নি। জানে না জেলা পরিষদও।

গত ১৭ নভেম্বর এই নামফলক ভেঙে ফেলা হয়েছিল। অভিযোগের আঙুল উঠেছিল স্থানীয় সাংসদ লিয়াকত হোসেন খোকার দিকে। এ নিয়ে জেলাজুড়ে তোলপাড় সৃষ্টি হয়। দলীয় সিনিয়র নেতা আনোয়ার হোসেনের নামফলক ভেঙে ফেলার প্রতিবাদে গর্জে ওঠে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা। নারায়ণগঞ্জ-৩ (সোনারগাঁ) আসনের সাংসদ ও জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য লিয়াকত হোসেন খোকার বিরুদ্ধে শুধু সোনারগাঁয়ে নয় নারায়ণগঞ্জ শহরেও প্রতিবাদ সভা, মানববন্ধন, বিক্ষোভ মিছিল অনুষ্ঠিত হয়েছে লাগাতার। নিন্দা জানান নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের মেয়র ও জেলা আওয়ামী লীগের জ্যেষ্ঠ সহসভাপতি ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভীসহ দলের সিনিয়র নেতৃবৃন্দ। সর্বশেষ মহানগর আওয়ামী লীগের উদ্যোগে আয়োজিত এক মানববন্ধন কর্মসূচিতে সাংসদ খোকার ছবি সম্বলিত কুশপুত্তলিকা পোড়ানো হয়। কুশপুত্তলিকায় জুতা পেটাও করে বিক্ষুব্দ নেতাকর্মীরা।

অবিলম্বে সাংসদকে প্রকাশ্যে ক্ষমা চেয়ে এই ঘটনার জন্য অনুতপ্ততা প্রকাশের দাবিও ওঠে। নামফলক ভাঙার ঘটনার সাথে জড়িত সকলকে গ্রেফতার করে শাস্তির দাবিও জানায় আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা। এ বিষয়ে সাংসদ লিয়াকত হোসেন খোকা মুখ না খুললেও তার পক্ষে জাতীয় পার্টি গণমাধ্যমে বিবৃতি দেয়। জেলা ও মহানগর জাতীয় পার্টির নেতাদের দাবি, এই ঘটনায় তাদের নেতা ও সাংসদ লিয়াকত হোসেন খোকা সম্পৃক্ত নন। এদিকে ক্ষোভের পারদ যখন উপরের দিকে উঠছিল ঠিক তখনই নতুন করে নামফলক স্থাপন করা হয়েছে। তবে কে বা কারা এই নামফলক স্থাপন করেছে সে বিষয়ে জানেন না কেউ।

এ বিষয়ে জানতে সোনারগাঁ জিআর ইনস্টিটিউশনের অধ্যক্ষ সুলতান মিয়ার সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলে তার মুঠোফোনের নম্বরটি বন্ধ পাওয়া যায়। এ বিষয়ে কিছু জানেন না বললেন জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি আনোয়ার হোসেন। তবে ইঙ্গিত দিয়ে বলেন, যারা ভেঙেছেন তারাই স্থাপন করেছে। আনোয়ার হোসেন বলেন, ‘এ বিষয়ে আমি কিছু জানি না। জেলা পরিষদ থেকে ওটা লাগানো হয়নি আর জিআর ইনস্টিটিউশনের কেউ লাগালেও আমি সেটা জানতাম। যারা ভাঙছে তারাই ওটা লাগিয়েছে।’

সব খবর
নগরের বাইরে বিভাগের সর্বশেষ