শুক্রবার ২৩ এপ্রিল, ২০২১

হাই প্রোফাইল নেতারা বাদ

শুক্রবার, ১ জানুয়ারি ২০২১, ২১:৪৩

প্রেস নারায়ণগঞ্জ.কম

প্রেস নারায়ণগঞ্জ: নতুন বছরের প্রথম দিনেই নারায়ণগঞ্জের রাজনীতিতে চমক ছিল জেলা বিএনপির আহ্বায়ক কমিটির ঘোষণা। অ্যাড. তৈমুর আলম খন্দকারকে আহ্বায়ক ও অধ্যাপক মামুন মাহমুদকে সদস্যসচিব করে ৪১ সদস্যের আহ্বায়ক কমিটির অনুমোদন দিয়েছে কেন্দ্রীয় বিএনপি। বিগত দিনে সরকার বিরোধী আন্দোলনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করার স্বীকৃতি পেয়েছেন অ্যাড. তৈমুর আলম খন্দকার, অধ্যাপক মামুন মাহমুদ, মনিরুল ইসলাম রবি, রিয়াদ মোহাম্মদ চৌধুরীসহ অনেকে। তবে নিষ্ক্রিয় এবং যাঁদের বিরুদ্ধে সরকারি দলের সাথে আঁতাত করে রাজনীতি করার অভিযোগ রয়েছে এমন অনেকেই কমিটিতে স্থান পেয়েছেন। এমনকি আহ্বায়ক কমিটিতে বাদ পড়েছেন বিলুপ্ত জেলা বিএনপির বেশ কয়েকজন হাই প্রোফাইল নেতা।

বাদ পড়া নেতাদের মধ্যে রয়েছেন বিলুপ্ত কমিটির সভাপতি কাজী মনিরুজ্জামান মনির, সাবেক প্রতিমন্ত্রী অধ্যাপক রেজাউল করিম, সাবেক সাংসদ মুহাম্মদ গিয়াসউদ্দিন, সাবেক সাংসদ আতাউর রহমান আঙ্গুর, কেন্দ্রীয় বিএনপির সহ আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক নজরুল ইসলাম আজাদ, নির্বাহী সদস্য মোস্তাফিজুর রহমান দিপু ভূইয়া, বিলুপ্ত কমিটির সহসভাপতি আজহারুল ইসলাম মান্নান, ব্যারিস্টার পারভেজ আহমেদ, সাংগঠনিক সম্পাদক মাসুকুল ইসলাম রাজীব, নাসিক কাউন্সিলর আয়েশা আক্তার দিনা।

সাবেক কমিটির উল্লেখযোগ্য এই নেতারা আহ্বায়ক কমিটিতে না থাকলেও নতুন কয়েকজন কমিটিতে স্থান পেয়েছেন। এদিকে ছোট হলেও কমিটি ‘পারফেক্ট’ বলে মন্তব্য করেছেন সাবেক কমিটির সাধারণ সম্পাদক ও বর্তমান কমিটির সদস্যসচিব অধ্যাপক মামুন মাহমুদ।

তিনি প্রেস নারায়ণগঞ্জকে বলেন, ‘বিএনপি একটি বড় দল। আহ্বায়ক কমিটিতে সকলকে জায়গা দেওয়া সম্ভব হয়নি। কেননা আহ্বায়ক কমিটি সবসময় ছোটই হয়। তবে জেলা বিএনপির অধীনে থাকা দশটি ইউনিটের প্রতিনিধিত্ব করার জন্য পারফেক্ট কমিটি কেন্দ্র দিয়েছে। নতুন বছরের প্রথম দিনে কমিটি ঘোষণা করা হয়েছে। নেতাকর্মীরা পূর্ণ উদ্যোমে রাজপথে আন্দোলন-সংগ্রামে অংশগ্রহণ করবে। আগামী তিন মাসের মধ্যে সকল ইউনিটের সম্মেলন শেষ করে জেলা কমিটি পূর্ণাঙ্গ করা হবে।’

আহ্বায়ক অ্যাড. তৈমুর আলম খন্দকার ও সদস্যসচিব অধ্যাপক মামুন মাহমুদ ছাড়াও বর্তমান আহ্বায়ক কমিটির অন্যরা হলেন: যুগ্ম আহবায়ক মনিরুল ইসলাম রবি, মোহাম্মদ নাসির উদ্দিন, আব্দুল হাই রাজু, লুৎফর রহমান আবদু, অ্যাড. মাহফুজুর রহমান হুমায়ূন, জাহিদ হাসান রোজেল, নজরুল ইসলাম পান্না মোল্লা। এছাড়া খন্দকার আবু জাফর, নজরুল ইসলাম টিটু, অ্যাড. আবুল কালাম আজাদ বিশ্বাস, শরীফ আহমেদ টুটুল (চেয়ারম্যান), মাহমুদুর রহমান সুমন, মোশারফ হোসেন, বশির উদ্দিন বাচ্চু, হাজী সেলিম, মোশারফ হোসেন (সোনারগাঁ পৌরসভা), আশরাফুল হক রিপন, ওয়াহিদ বিন ইমতিয়াজ বকুল, রিয়াদ মোহাম্মদ চৌধুরী, হাবিবুর রহমান হাবু, দুলাল হোসেন, মো. কাশেম ফকির, ইউসুফ আলী ভূঁইয়া, আব্দুল আজিজ মাস্টার, এমএ হালিম জুয়েল, গুলজার হোসেন (চেয়ারম্যান), মো. শাহ আলম হীরা, নুরুন্নাহার বেগম, একরামুল কবির মামুন, শাহ আলম মুকুল, মোস্তাকুর রহমান, রিয়াজুল ইসলাম, রহিমা শরীফ মায়া, রুহুল আমিন, কামরুজ্জামান মামুন, হামিদুল হক খান, মো. বাকির হোসেন, আল মুজাহিদ মল্লিক ও জুয়েল আহমেদ।

প্রসঙ্গত, ২০১৭ সালের ১৩ ফেব্রুয়ারি কাজী মনিরুজ্জামান মনিরকে সভাপতি ও অধ্যাপক মামুন মাহমুদকে সাধারণ সম্পাদক করে নারায়ণগঞ্জ জেলা বিএনপির আংশিক কমিটি ঘোষণা করে কেন্দ্রীয় কমিটি। এর দুই বছর পর ২০৫ সদস্য বিশিষ্ট জেলা বিএনপির পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা করা হয়। গত বছরের ২১ ফেব্রুয়ারি এই কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণা করা হয়।

সব খবর
রাজনীতি বিভাগের সর্বশেষ