শনিবার ০৩ ডিসেম্বর, ২০২২

জীবন বাজি রেখে কাজ করতে চাই: আইভী

মঙ্গলবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১৯:২৮

প্রেস নারায়ণগঞ্জ.কম

প্রেস নারায়ণগঞ্জ: নতুন কোন কর সংযোজন ছাড়াই নতুন অর্থবছরের (২০২২-২৩) ৫৮৮ কোটি ৬৯ লাখ ১০ হাজার ৬৩৮ কোটি টাকার বাজেট ঘোষণা করেছেন নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের মেয়র ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী। কোভিড পরবর্তী পরিস্থিতি ও বৈশ্বিক মন্দার কারণে গতবারের চেয়ে এবার প্রায় ১০০ কোটি টাকা কম বাজেট ঘোষণা করা হয়।

মঙ্গলবার (২০ সেপ্টেম্বর) দুপুরে শহরের ডিআইটিতে আলী আহাম্মদ চুনকা নগর পাঠাগার ও মিলনায়তনে বাজেট অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। এবারের বাজেটে রাজস্ব ও উন্নয়ন খাতে মোট ৫৮৮ কোটি ৬৯ লাখ ১০ হাজার ৬৩৮ টাকা আয় এবং মোট ৫৫৯ কোটি ৪৫ লাখ ২৬ হাজার ৪৭৯ টাকা ব্যয় ধরা হয়েছে। বছর শেষে ঘোষিত বাজেটে ২৯ কোটি ২৩ লাখ ৮৪ হাজার ১৫৯ টাকা উদ্ধৃত থাকবে বলে জানান মেয়র।

সিটি করপোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা শহীদুল ইসলাম জানান, এবারের প্রস্তাবিত বাজেটে অবকাঠামোগত উন্নয়ন যথা- রাস্তা, ড্রেন, ব্রিজ, কালভার্ট নির্মাণ ও পুনঃনির্মাণ, বৃক্ষ রোপণ, দারিদ্র্য বিমোচন, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও জরুরি ত্রাণ, তথ্য-প্রযুক্তি, শিক্ষা, স্বাস্থ্য, যানজট নিরসন, জলাবন্ধতা দূরীকরণ, মশক নিধন, বর্জ্য ব্যবস্থাপনা আধুনিকায়ন, খেলাধুলার মানোন্নয়নে মাঠ নির্মাণ, সড়ক বাতি স্থাপনসহ সুপেয় পানি সরবরাহ খাতে বিশেষ বরাদ্দ রাখা হয়েছে।

এছাড়া বৈদেশিক সাহায্যপুষ্ট প্রকল্পের আওতায় অবকাঠামো নির্মাণ ও পুনঃনির্মাণ, বর্জ্য ব্যবস্থাপনা, পরিবেশ সংরক্ষণ এবং সিটি কর্পোরেশনের আওতাধীন খালসমূহ খননের মাধ্যমে জলাধার সংরক্ষণের জন্যও বাজেটে বরাদ্দ রাখা হয়েছে। সিটি কর্পোরেশনের আয়বর্ধক প্রকল্প হিসেবে নিজস্ব ভূমিতে বাণিজ্যিক কাম আবাসিক ভবন নির্মাণের উদ্যোগ অব্যাহত রয়েছে। বর্তমানে বর্জ্য ব্যবস্থাপনা আধুনিকায়নের উদ্যোগ চলমান। শিক্ষা প্রতিষ্ঠান উন্নয়নমূলক কাজ বাস্তবায়নের জন্য বাজেটে প্রয়োজনীয় বরাদ্দ আছে। খেলাধুলার মানোন্নয়নে প্রতিটি ওয়ার্ডে মাঠ উন্নয়নের ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। ৫নং গুদারাঘাটের কাছে শীতলক্ষ্যা নদীর ওপর সেতু নির্মাণ কার্যক্রম অব্যাহত রয়েছে। ইতোমধ্যে প্রাক-যোগ্যতার দরপত্র সম্পন্ন করে সেতু নির্মাণ, বিভিন্ন জাতীয় দিবস উদযাপনসহ রক্ষণাবেক্ষণ খাতেও বাজেটে পর্যাপ্ত বরাদ্দ রাখা আছে।

এবারের বাজেটে নতুন কোন কর আরোপ করা হয়নি জানিয়ে সিটি মেয়র ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী সকলকে যথাসময়ে রাজস্ব প্রদানের অনুরোধ জানান। তিনি বলেন, পানি সরবরাহের ক্ষেত্রে অধিক গুরুত্ব দিয়ে কাজ করা হবে। লাভজনক না হলেও ভর্তুকি যাতে এই খাতে দিতে না হয় সেদিকে লক্ষ রাখা হচ্ছে। সিটি করপোরেশনে পার্ক, মাঠ, খোলা জায়গা রাখার জন্য জমি নেই। তারপরও নগরবাসীর সুবিধার্থে আমরা এ নিয়ে কাজ করবো, প্রয়োজনে জমি অধিগ্রহণ করা হবে। এখন পর্যন্ত বেশ কয়েকটি পুকুর ও খাল উদ্ধার করেছি।

স্বাস্থ্যসেবাখাতে সিটি করপোরেশন গুরুত্ব দিচ্ছে উল্লেখ করে মেয়র বলেন, ‘সিটির তিন অঞ্চলে চারটি স্বাস্থ্যকেন্দ্র ও মাতৃসদনে স্বাস্থ্যসেবা প্রদান করা হচ্ছে। আগামীতে ওয়ার্ডভিত্তিক স্বাস্থ্যসেবা কেন্দ্র শুরুর পরিকল্পনা রয়েছে। সিটি করপোরেশনে কাজ করতে গিয়ে অনেক বাধার সম্মুখীন হতে হয়। কোন কাজই বাধা ছাড়া করতে পারি না। স্কুল, মাঠ, পার্ক করতে গেলেও বাধা আসে। তারপরও কাজ করে যাই। নগরবাসীর জন্য জীবন বাজি রেখে সেবা করতে চাই। আপনাদেরও সহযোগিতা চাই।’

বাজেট ঘোষণা অনুষ্ঠানে নাসিকের কাউন্সিলর ও কর্মকর্তাবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। বাজেট ঘোষণাপর্ব শেষ হলে ‘জনতার মুখোমুখি মেয়র’ পর্বে নগরবাসীর বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেন ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী।

সব খবর
রাজনীতি বিভাগের সর্বশেষ