১৬ জুন ২০২৪

প্রেস বিজ্ঞপ্তি

প্রকাশিত: ১৯:৫৫, ১৯ মে ২০২৪

হায়দার আকবর খান রনোর মৃত্যুতে সিপিবির শোকসভা

হায়দার আকবর খান রনোর মৃত্যুতে সিপিবির শোকসভা

বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টির কেন্দ্রীয় কমিটির উপদেষ্টা হায়দার আকবর খান রনোর মৃত্যুতে শোক সভা করেছে বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি (সিপিবি) নারায়ণগঞ্জ জেলা কমিটি। শনিবার (১৮ মে) সন্ধ্যা ৬ টায় সিপিবি'র জেলা কার্যালয়ে এ শোক সভা অনুষ্ঠিত হয়। 

জেলা সিপিবি'র সভাপতি হাফিজুল ইসলাম এর সভাপতিত্বে শোক সভায় আলোচনা করেন সিপিবি কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি মোহাম্মাদ শাহ আলম, খেলা ঘর কেন্দ্রীয় কমিটির প্রেসিডিয়াম সদস্য রথীন চক্রবর্তী, সিপিবি জেলা কমিটির সাধারণ সম্পাদক শিবনাথ চক্রবর্তী, সম্পাদক মন্ডলীর সদস্য আ. হাই শরীফ, বিমল কান্তি দাস, জেলা কমিটির সাবেক সভাপতি জিয়া হায়দার ডিপটি, সদস্য দুলাল সাহা, জাকির হোসেন, শিশির চক্রবর্তী, বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টি জেলার সভাপতি হাফিজুর রহমান, বাংলাদেশের সমাজতান্ত্রিক দল 'বাসদ' জেলা কমিটির সদস্য সেলিম মাহমুদ, বাংলাদেশের বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টি জেলা কমিটির নেতা শহিদুল আলম নান্নু প্রমূখ।

শোক সভায় নেতৃবৃন্দ বলেন, কমরেড হায়দার আকবর খান রনো বামপন্থী রাজনৈতিক আন্দোলনের শীর্ষ নেতা। দেশের রাজনৈতিক ও সচেতন মহলের পরিচিত ব্যক্তি, বিশিষ্ট মার্কসবাদী তাত্ত্বিক, লেখক, দেশ প্রেমিক ও আজীবন সংগ্রামী মানুষ। তিনি আত্মঅহংকারহীন ও সদা হাস্যোজ্জ্বল সাধারণ মানুষ ছিলেন। হায়দার আকবর খান রনো ১৯৪২ সালের ৩১ আগস্ট অবিভক্ত ভারতের কলকাতায় জন্ম গ্রহণ করেন। গত ১০ মে দিবাগত রাত ২ টা ৫ মিনিটে মৃত্যবরণ করেছেন। তিনি দীর্ঘ রাজনৈতিক জীবনে ৬২’র শিক্ষা আন্দোলন থেকে শুরু করে পাকিস্তানি স্বৈরাচারবিরোধী সংগ্রাম, মহান মুক্তিযুদ্ধ, এদেশে অসাম্প্রদায়িকতা, গণতন্ত্র ও সমাজতন্ত্র প্রতিষ্ঠার সংগ্রামে অবিচল ছিলেন। জেল-জুলুম নির্যাতন উপেক্ষা করে তিনি তার সংগ্রামী জীবন অব্যাহত রেখেছিলেন। 

নেতৃবৃন্দ আরও বলেন, একজন মার্কসবাদী তাত্ত্বিক হিসাবে তিনি অসংখ্য লেখনি রেখে গেছেন যা নতুন প্রজন্মের জন্য সংগ্রামের প্রেরণা হিসাবে থাকবে। তিনি জীবনের শুরুতেই ছাত্র আন্দোলনের সাথে যুক্ত হন। ছাত্র আন্দোলন শেষে শ্রমিক আন্দোলনে যুক্ত হয়ে ছিলেন। যার মধ্য দিয়ে শ্রমিক শ্রেণির মুক্তি আন্দোলনকেও ত্বরান্বিত করেছেন। এদেশের শ্রমজীবী মেহনতি মানুষকে সংগঠিত করার মাধ্যমে শোষণমুক্তি ও সমাজতন্ত্র প্রতিষ্ঠার সংগ্রামে আজীবন তিনি নিয়োজিত ছিলেন। আগামী দিনে দেশে সমাজতন্ত্র তথা “মুক্ত মানবের মুক্ত সমাজ” প্রতিষ্ঠার লড়াই সংগ্রামে মাঝে তিনি বেচে থাকবেন।

সর্বশেষ

জনপ্রিয়